গাজায় ফের বিমান থেকে ইসরায়েলের বোমা হামলা

গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনি সশস্ত্র সংগঠন হামাসের ওপর আবারও বিমান থেকে বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। তবে এতে হতাহতের কোনও খবর পাওয়া যায়নি। খবর রয়টার্সের।

ইসরায়েলি বাহিনী শুক্রবার বলেছে, গাজা থেকে ছোড়া বিস্ফোরকভর্তি বেলুনের জবাবে হামাসের একটি অস্ত্র তৈরির স্থাপনায় বিমান হামলা চালানো হয়েছে।

গত মে মাসে ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের ১১ দিনের সংঘাতের পর হওয়া যুদ্ধবিরতির সময় থেকে গাজার ফিলিস্তিনিরা মাঝে মধ্যেই ইসরায়েলে আগুনে বেলুন ছুড়েছে। এতে আগুন ধরে গিয়ে পুড়েছে জমি। ফিলিস্তিনিরা বলছে, মে’র লড়াইয়ের সময় উপকূলীয় এলাকায় আরোপিত কড়াকড়ি শিথিলে ইসরায়েলকে চাপে ফেলতেই ছোড়া হচ্ছে এই আগুনে বেলুন।

গত সপ্তাহে ইসরায়েল গাজায় কিছু কড়াকড়ি শিথিল করার পর বেলুন ছোড়া কমে এসেছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার গাজা থেকে ফের সীমান্তের ওপারে বেলুন ছোড়ার ঘটনা ঘটে। এতে সীমান্ত বরাবর ইসরায়েলের কয়েকটি নগরীতে চার জায়গায় ঝোপঝাড়ে আগুন ধরে যায়। ইসরায়েলের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আগুনে বেলুন থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের জবাবে আজ ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর যুদ্ধবিমান হামাসের অস্ত্র উৎপাদন কারখানায় আঘাত হেনেছে।’

গাজা থেকে বেলুন ছোড়ার জবাবে এর আগে গত জুন মাসেও দুবার বিমান হামলা চালিয়েছিল ইসরায়েলি বাহিনী। ফিলিস্তিনি সশস্ত্র দল হামাসের মুখপাত্র ফাওজি বারহোম ইসরায়েলের বিমান হামলাকে বাড়াবাড়ি বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের জনগণের অধিকারকে সম্মান জানানো এবং অন্যায় অবস্থান থেকে সরে যাওয়ার জন্য ইসরায়েলের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে ফিলিস্তিন।’

মিশর ও জাতিসংঘ ইসরায়েলের বিমান হামলা এবং গাজা থেকে ফিলিস্তিদের বেলুন ছোড়া বন্ধ করতে মধ্যস্থতার চেষ্টা চালাচ্ছে।

পাঠকের মন্তব্য