মমতার জয়ে  মোদির টুইট

অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে শেষমেশ মুখ খুললেন তিনি। জয়ের জন্য মমতা ব্যানার্জিকে অভিনন্দন জানালেন মোদি।

টুইটারে মোদি লিখেছেন, ‘মমতাদিদিকে ধন্যবাদ।’ সেইসাথে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, ‘করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে সবরকম সাহায্য করবে কেন্দ্র।’

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গ দখলে এবার ঝাঁপিয়ে পড়েছিল কেন্দ্রীয় শাসক দল বিজেপি। উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বঙ্গে বিজেপির উত্থানের পরই ‘সোনার বাংলা’ গড়ার লক্ষ্যে পুরোদমে আসরে নামেন মোদি-অমিত শাহরা। একুশের নির্বাচনী প্রচারে মমতা ব্যানার্জি বনাম নরেন্দ্র মোদি বাগযুদ্ধে সরগরম হয়েছে বঙ্গ রাজনীতি।

মোদির ‘দিদি ও দিদি’ ডাক ঘিরেও তুমুল রাজনৈতিক আলোচনা-সমালোচনা চলে। অন্যদিকে, মোদিকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন মমতা। শেষমেশ একুশের রায়ে শেষ হাসি হেসেছেন মমতাই। এই প্রেক্ষিতে ভোটগণনার শেষলগ্নে টুইটারে মমতাকে মোদির জয়ের অভিনন্দন অন্য মাত্রা এনে দিল বলেই মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে, মমতাকে জয়ের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংও।

মমতার জয়ে উচ্ছ্বসিত অ-বিজেপি দলগুলো। মমতার জয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদব, শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত, মেহবুবা মুফতিরা।

উল্লেখ্য, উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিবিরোধী মুখ হয়ে উঠেছিলেন মমতা। আজকের জয়ের জেরে জাতীয় স্তরে বিজেপি বিরোধিতায় অন্যতম ভূমিকা পালন করতে পারেন মমতা, এমনটাই মনে করছে পর্যবেক্ষক মহলের একাংশ।

মমতার জয় প্রসঙ্গে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত বলেছেন, ‘মমতা ব্যানার্জি স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন যে মোদিজি ও অমিত শাহজি অপরাজেয় নন। তাদেরকেও হারানো যেতে পারে।’

তৃণমূল প্রধানকে জয়ের অভিনন্দন জানিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়াল লিখেছেন, ‘কী দুর্দান্ত লড়াই। জয়ের অভিনন্দন মমতাদিকে। বাংলার মানুষকে অভিনন্দন।’

বিজেপির ঘৃণার রাজনীতিতে পরাস্ত করেছেন মমতা, এ ভাষাতেই অভিনন্দন জানিয়েছেন সপা নেতা অখিলেশ। তার কথায়, ‘দিদি ও দিদি বলে ডাকের যোগ্য জবাব দেয়া হয়েছে।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জয়ের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কাশ্মিরের পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতিও।

সূত্র : এই সময়

পাঠকের মন্তব্য