আজ মুখোমুখি হচ্ছে লিভারপুল-রিয়াল মাদ্রিদ

২০১৮ সালে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের লড়াইয়ে মুখোমুখি হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ এবং লিভারপুল। ওই ম্যাচের আধঘণ্টা পার না হতেই লিভারপুলের তারকা স্ট্রাইকার মোহামেদ সালাহকে কঠিন ট্যাকল করলেন রিয়ালের ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। সেই এক ট্যাকলেই মাঠ ছেড়ে যেতে বাধ্য হন সালাহ। ম্যাচ ওই সময়ই ঢুকে যায় রিয়াল মাদ্রিদের পকেটে।

তিন বছর পর এসে আবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মুখোমুখি লিভারপুল এবং রিয়াল মাদ্রিদ। এবার কোয়ার্টার ফাইনালে। সেমিতে ওঠার লড়াই। প্রথম লেগের লড়াইয়ে রিয়ালের মাঠেই খেলতে গেলো লিভারপুল। আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় আলফ্রেডো ডি স্টেফানো স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে এই দু’দল।

আজকের ম্যাচে যারা খেলবেন, ২০১৮ সালের সেই ম্যাচের কুশিলবদের অধিকাংশই রয়েছেন আজ। যদিও রিয়ালে কিছুটা পরিবর্তন আছে। রোনালদো-বেল নেই। কিন্তু সেই সার্জিও রামোস, সেই মোহামেদ সালাহ - দু’জনই আছে। ডাগআউটে রয়েছেন সেই জিদান এবং সেই ইয়ুর্গেন ক্লপ।

সুতরাং, লিভারপুল কিংবা মোহামেদ সালাহ- তাদের সামনে প্রতিশোধ নেয়ার দারুণ এক সুযোগ। অন্যদিকে স্প্যানিশ লা লিগায় ধুঁকে থাকার কারণে জিনেদিন জিদানের চাকরি টিকিয়ে রাখার একটাইমাত্র পথ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। না হয়, আগামী মৌসুমে রিয়ালের কোচ হতে পারেন অন্য কেউ। সুতরাং, জিদানের জন্য আজ স্বস্তি নেয়ার ম্যাচ।

ঘরের মাঠে লিভারপুলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে অবশ্য প্রতিপক্ষ সম্পর্কে উচ্চকিত প্রশংসা করলেন জিদান। তিনি বললেন, লিভারপুল হচ্ছে একটি পূর্ণ শক্তির দল। বিশ্বের যে কোনো দলকে হারিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে তারা।

জিদান বলেন, ‘তারা সত্যিই একটি পূর্ণাঙ্গ দল। অনেকেই তো দেখান যে, তাদের সেরা তিন ফরোয়ার্ড রয়েছে। এটা সত্যি। তারা তিনজনই অসাধারণ। আমার মনে হয়, পুরো দলটিই খুব শক্তিশালী এবং নিখুঁত একটি দল।’

লিভারপুলের বিপক্ষে মাঠে নামার জন্য এরই মধ্যে স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন জিদান। যেখানে দেখা যাচ্ছে ফেডে ভালভার্দেকে ফেরানো হয়েছে দলে। কিন্তু ইডেন হ্যাজার্ডকে বাদ দিয়েই স্কোয়াড তৈরি করেছেন রিয়াল কোচ।

পাঠকের মন্তব্য