কৌশানীর ভিডিও ভাইরাল,  সমালোচনা  বিজেপির 

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর উত্তরে তৃণমূল প্রার্থী কৌশানী মুখোপাধ্যায়ের ভোট চাওয়ার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়েছেন কৌশানী। তবে তার দাবি ভিডিওটির অংশবিশেষ ছড়িয়ে তাকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, কৃষ্ণনগর উত্তরে কৌশানীর অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিজেপি নেতা মুকুল রায়। ঘটনাচক্রে ‘মুকুল রায়’ নামের ফেসবুক পেজে কৌশানীর একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়ছে। ভিডিওতে কৌশানীকে বলতে দেখা যায়, ‘ঘরে সবার মা বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’। আর কৌশানীর এই বক্তব্যই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

তবে কৌশানীর দাবি, যে অর্থে তিনি ওই কথা বলেছেন তার ভুল ব্যাখ্যা করছে বিজেপি। অন্যদিকে মুকুল রায়ের দাবি, এটি তার ‘অফিশিয়াল পেজ’ নয়। তাই তিনি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করবেন না। তৃণমূলও এ নিয়ে মন্তব্য করেনি। তবে ভোটারদের হুমকি দিচ্ছেন কৌশানী- এমন অভিযোগ তুলে তার মন্তব্য নিয়ে সমালোচনা করতে ছাড়ছে না বিজেপি।

ভিডিওটি ভাইরাল হতেই ফেসবুক লাইভে বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়েছে কৌশানী। তার অভিযোগ, বিজেপির আইটি সেল ওই ভিডিও ছড়াচ্ছে। তিনি বলেন, ‘মা বোনেরা আছে, ভোটটা ভেবে দেবেন, এই কথাটা আমি হুমকির সুরে বলিনি। ইচ্ছা করে অন্যভাবে এটা ছড়ানো হচ্ছে। আমি আমার টিমকে বলব, পুরো ভিডিওটি যাতে তারা প্রকাশ করেন। সাধারণ মানুষ যাতে পুরোটা দেখতে পান।’

উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের ঘটনা উল্লেখ করে কৌশানীর বলে, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের হিসাব অনুসারে পশ্চিমবঙ্গ নারীদের জন্য সবচেয়ে সুরক্ষিত রাজ্য। একদিকে যখন বিজেপিশাসিত রাজ্যে হাথরসের মতো ঘটনা ঘটছে, তখন পশ্চিমবঙ্গে নারীরা নিরাপদে আছেন।’ এই বিষয়টিই সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

কৌশনী এর আগে একাধিকবার মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। কখনো তিনি বলেছেন, ‘তিনি (মুকুল রায়) নিজেকে শক্তিশালী মনে করলেও কৃষ্ণনগরের মানুষ আমাকে শক্তিশালী বলে মনে করছেন। আমার জনসমর্থন দেখে বিজেপির প্রার্থী ঘরে ঢুকে পড়েছেন।’ কখনও তিনি বলেন, ‘কখনো কোনো নির্বাচনে জয়লাভ করেননি মুকুল রায়। আমরা তাকে হেভিওয়েট প্রার্থী বলে মনেই করি না।’ তার এসব মন্তব্যে মুকুল রায় নিজের বিরক্তির কথাও জানিয়েছেন মুকুল রায়।

কৌশানীর ভিডিও-বক্তব্য নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি নারী তৃণমূলের সভাপতি তথা দমদম উত্তর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, ‘আমি ভিডিওটি দেখিনি। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

তবে রাজারহাট-গোপালপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্য এ নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। তিনি বলেন, ‘আগে দলের নেতারা বুঝেছিলেন ভোটের ফল কী হবে। এখন নবাগতরাও বুঝতে পেরেছেন কী ফল হতে চলেছে। এটা তারই বহিঃপ্রকাশ।’

পাঠকের মন্তব্য