অনিশ্চয়তার দোলাচলে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ আয়োজন

২০২১ সালের জানুয়ারিতে নারী অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের প্রথম আসরের আয়োজনের কথা রয়েছে বাংলাদেশের। কিন্তু দেশের চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে এর আয়োজন এখন অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। যদিও এখনও চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছ থেকে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে হবে নভেম্বর পর্যন্ত। 
 
মহামারী করোনাভাইরাসের প্রভাবে ইতোমধ্যে স্থগিত করা হয়েছে টি-টোয়ান্টি বিশ্বকাপের চলতি বছরের আসরটি, যা কিনা অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ায়। একই সঙ্গে পিছিয়ে গেছে নারী বিশ্বকাপও। আর সেই সঙ্গে শঙ্কা দেখা দিয়েছে অনূর্ধ্ব-১৯ নারী বিশ্বকাপের আয়োজন নিয়েও। 

ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, উপমহাদেশের করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ আয়োজন করা নাও হতে পারে। 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপ নিয়ে আইসিসি তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেও নভেম্বরের বোর্ড সভায় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ভবিষ্যৎ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবে। 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস সংবাদমাধ্যমকে এ প্রসঙ্গে বলেন, 'কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে বিসিবির সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছে আইসিসি। তবে অনূর্ধ্ব-১৯ নারী বিশ্বকাপের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে গভর্নিং বডি।'
 
তবে বিশ্বকাপ আয়োজনের সম্ভাবনা এখনই শেষ হয়ে যাচ্ছে না বাংলাদেশের। কেননা আইসিসি আসন্ন বিশ্বকাপটি স্থগিত করে দিলেও একই বছরের শেষ দিকে সেটি পরিস্থিতি বিবেচনায় আয়োজন করা যেতে পারে বিশ্বকাপটির। 

করোনার কারণে আইসিসির চলতি বছরের বেশ কিছু ২০২২ সালে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এর ভেতর রয়েছে অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপ, যা কিনা অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ সালের জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজে।

একই বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে নারীদের ওয়ানডে বিশ্বকাপ। আর চলতি বছরের স্থগিত হওয়া পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি হবে অক্টোবর-নভেম্বরে, আয়োজক হিসেবে থাকছে অস্ট্রেলিয়া।

পাঠকের মন্তব্য