ধর্ষণের প্রতিবাদে ‘প্রজন্মবার্তা ফাউন্ডেশন’র মানববন্ধন

দেশের বিভিন্ন স্থানে অব্যাহত ধর্ষণ, নারী নির্যাতন ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে সারাদেশে চলমান প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে মানববন্ধন করেছে রাজধানীর অন্যতম সামাজিক সংগঠন ‘প্রজন্মবার্তা ফাউন্ডেশন’।

সোমবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনটির পক্ষে শতাধিক মানুষ এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে। প্রজন্মবার্তা ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক সামছুল আরেফিনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন সাকিব রহমান, দেলোয়ার হোসেন, রুবেল হোসেন, রিয়াজ, জান্নাতুল ফেরদৌস তুলি। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন- মাহফুজা মুস্তারি, সামছুল আরাফাত, ইমন, সোহান, সজীব, হৃদয়, আরমান, হাসান, মোহনা মোনালিসা, মামুন, শাহীন হোসেনসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। 

মানববন্ধনে সামছুল আরেফিন বলেন, বর্তমানে দেশে তিন বছরের কন্যাশিশু থেকে ৭০ বছরের বৃদ্ধা ধর্ষণকারীদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না। এরকম একটি ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজ করছে দেশে। এ যে ধরনের সংস্কৃতি সেটা একদিন গড়ে ওঠেনি। বলা হচ্ছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে এখন মানুষ বেশি জানতে পারছে। অথচ দেশে শতকরা ৮০টি ধর্ষণের কথা প্রকাশই পায় না। বাকি শতকরা ২০টি ধর্ষণের মধ্যে আদালতে মামলা পর্যন্ত গড়ায় ১০টি। তার মধ্যে শতকরা পাঁচটি ক্ষেত্রে ধর্ষকের শাস্তি হয়। তাই সারাদেশে ধর্ষণ ও নারী-শিশু নির্যাতনের ঘটনা দ্রুত আমলে নিয়ে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করতে হবে।

সাকিব রহমান বলেন, করোনা মহামারিতে পৃথিবী যখন বিপর্যস্ত, তখন নোয়াখালী, সিলেট, মুন্সিগঞ্জ, পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় ধর্ষণের ঘটনাগুলো আমাদের উন্নয়ন ও সভ্যতাকে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। মূল্যবোধ ও নৈতিকতার অবক্ষয় এই পরিস্থিতির সহায়ক হিসেবে কাজ করেছে। উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমেই যা পুনঃস্থাপন সম্ভব। ধর্ষকের নৃশংসতা বর্বর যুগকেও হার মানিয়েছে। বিচারের পথ যখন দুর্গম হয় নির্যাতন তখন ব্যাপকতা পায়। এই প্রেক্ষাপটে নারীর প্রতি যৌনসহ সব নির্যাতন বন্ধে শক্তিশালী নারী সুরক্ষা কমিশন গঠনে করে বিচার করতে হবে।

এছাড়া জান্নাতুল ফেরদৌস তুলি বলেন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নে গৃহবধূকে মারপিট, ধর্ষণচেষ্টা ও নির্যাতন; সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ; লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে বিধবা নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ; ভোলার চরফ্যাশনে গৃহবধূকে ধর্ষণ; গোপালগঞ্জের কোটালি পাড়ায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ; কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ; রাজশাহীর গির্জায় ধর্ষণ; কিশোরগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণ; বরিশালের বাকেরগঞ্জের শিশুধর্ষণ; আশুলিয়ায় দুই কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ; রাজধানীর খিলগাঁওয়ে চার শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি; খাগড়াছড়ি ও সাভারে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা চাই এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তি হোক।

উল্লেখ্য, গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই শাহবাগ, প্রেস ক্লাবের সামনেসহ বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণবিরোধী সমাবেশ ও মানববন্ধন হচ্ছে।

এশিয়ামেইল২৪/আর

পাঠকের মন্তব্য